দুনিয়া কাঁপানো স্টিভ জবস এর একটি অনন্য বক্তৃতা | পর্ব -২

4
641
জন পড়েছেন
স্টিভ জবসের দুনিয়া কাঁপানো বক্তৃতা, স্টিভ জবস, স্টিভ জবস একজন স্বপ্নবান মানুষের গল্প
স্টিভ জবস

যদি প্রশ্ন করা হয়, এই পৃথিবীর সবচেয়ে স্বপ্নবান মানুষটি কে ? কোনো রকম বির্তক ছাড়াই যে নামটি আসবে তা হলো স্টিভ জবস একজন প্রকৃত স্বপ্নদ্রষ্টা, সফল উদ্যোক্তা এবং একজন নিষ্ঠাবান মানুষ বলতে আসলে যা বুঝায় স্টিভ জবস আসলে তাই ।

স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের আমন্ত্রণে ২০০৫ সালের সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বক্তৃতা দেন তিনি ।  অসাধারণ কথামালার এবং অনুপ্রেরণা মূলক একটি বক্তৃতা ছিলো এটি । এই কালজয়ী বক্তৃতাটিকে আমরা তিন পর্বে সাজিয়েছি । আজ থাকছে দ্বিতীয় পর্বটি । পড়ুন এবং শেয়ার করে কাছের মানুষদের পড়তে উৎসাহিত করুন ।

পড়ে আসুন | স্টিভ জবসের কালজয়ী বক্তৃতাঃ পর্ব ১

 

 স্টিভ জবসের কালজয়ী বক্তৃতা
স্টিভ জবস

পর্ব -১ঃ 

আমার দ্বিতীয় গল্পটি ভালোবাসা আর হারানো নিয়ে।

আমি সৌভাগ্যবান ছিলাম। আমি আমার জীবনের প্রথম দিকেই আমার ভালোবাসার কাজ খুঁজে পেয়েছিলাম। ওজ আর আমি আমার বাবা-মা’র বাড়ির গ্যারেজে অ্যাপল কোম্পানী শুরু করেছিলাম। তখন আমার বয়স ছিলো ২০ বছর।

স্টিভ জবসের কালজয়ী বক্তৃতা
অ্যাপল ম্যাকিনটোশ

আমরা কঠিন পরিশ্রম করেছিলাম – ১০ বছরের মাথায় অ্যাপল কম্পিউটার গ্যারেজের ২ জনের কম্পানী থেকে ৪০০০ এম্পলয়ীর ২ বিলিয়ন ডলারের কোম্পানীতে পরিণত হয়। আমার বয়স যখন ৩০ হয় তার অল্প কিছুদিন আগে আমরা আমাদের সেরা কম্পিউটার অ্যাপল ম্যাকিনটোশ – বাজারে ছাড়ি। আর ঠিক তখনি আমার চাকরি চলে যায়।

 

কিভাবে একজন তার নিজের প্রতিষ্ঠিত কোম্পানী থেকে চাকরিচ্যুত হয়? ব্যাপারটি হল, অ্যাপল যখন অনেক বড়ো হতে লাগলো তখন আমি কোম্পানীটি খুব ভালোভাবে চালাতে পারবে এমন একজনকে নিয়োগ দিলাম। প্রথম বছর সবকিছু ভালোভাবেই গেলো। কিন্তু এরপর তার সাথে আমার চিন্তাভাবনার অমিল স্পষ্ট হতে শুরু করল। এবং পরিচালনা পর্ষদ তার পক্ষ নিলো।

তাই আমি আবার একেবারে গোড়া থেকে শুরু করার সিদ্ধান্ত নিলাম।

 

স্টিভ জবসের কালজয়ী বক্তৃতা
স্টিভ জবস

অতএব, ৩০ বছর বয়সে আমি কোম্পানী থেকে আউট হয়ে গেলাম। এবং খুব ভালোভাবে আউট হলাম। আমার সারা জীবনের স্বপ্ন এক নিমিষে আমার হাতছাড়া হয়ে গেলো। ঘটনাটা আমাকে বেশ ভেঙ্গে দিয়েছিলো।

এরপরের কয়েক মাস আমি বুঝতে পারছিলাম না আমি কী করবো। আমার মনে হচ্ছিলো আমি আগের প্রজন্মের উদ্যোগতাদের মনোবল ভেঙ্গে দিয়েছি – আমার হাতে যে দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে সেটা আমি করতে পারিনি। আমি ডেভিড প্যাকার্ড এবং বব নয়েস এর সাথে দেখা করে আন্তরিকভাবে ক্ষমা চাইলাম।

প্রেমে পড়ি এক অসাধারণ মেয়ের যে আমার বর্তমান জীবনসঙ্গী।

 

http://www.pifingersmotivation.com
স্টিভ জবস

একবার ভাবলাম ভ্যালী ছেড়ে পালিয়ে যাই। কিন্তু ধীরে ধীরে আমি একটা ব্যাপার অনুভব করতে লাগলাম – আমি আমার কাজকে এখনো ভালোবাসি ! এপলের ঘটনাগুলি সেই সত্যকে এতোটুকু বদলাতে পারেনি। আমাকে প্রত্যাখ্যান করা হয়েছে, কিন্তু আমি এখনো আমার কাজকে ভালোবাসি।

তাই আমি আবার একেবারে গোড়া থেকে শুরু করার সিদ্ধান্ত নিলাম।

প্রথমে এটা তেমন মনে হয়নি, কিন্তু পরে আবিষ্কার করলাম অ্যাপল থেকে চাকরিচ্যুত হওয়াটা ছিলো আমার জীবনের সবচেয়ে ভালো ঘটনা। সফল হবার ভার চলে যেয়ে আমি তখন নতুন করে শুরু করলাম। কোন চাপ নেই, সবকিছু সম্পর্কে আগের চেয়ে কম নিশ্চিত। ভারমুক্ত হয়ে আমি আমার জীবনের সবচেয়ে সৃজনশীল সময়ে যাত্রা শুরু করলাম।

স্টিভ জবসের কালজয়ী বক্তৃতা
স্টিভ জবস

কখনো কখনো জীবন তোমাকে মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে। তখন বিশ্বাস হারিয়ো না।

পরবর্তী পাঁচ বছরে আমি নেক্সট এবং পিক্সার নামে দুটো কম্পানী শুরু করি, আর প্রেমে পড়ি এক অসাধারণ মেয়ের যে আমার বর্তমান জীবনসঙ্গী। পিক্সার থেকে আমরা পৃথিবীর প্রথম এনিমেশন ছবি ”টয় স্টোরী” তৈরি করি। পিক্সার বর্তমানে পৃথিবীর সবচেয়ে সফল এনিমেশন স্টুডিও।

এরপর ঘটে কিছু চমকপ্রদ ঘটনা। অ্যাপল নেক্সটকে কিনে নেয় এবং আমি অ্যাপল এ ফিরে আসি। এবং নেক্সটএ আমরা যে প্রযুক্তি তৈরি করি সেটা এখন অ্যাপল এর বর্তমান ব্যবসার একেবারে কেন্দ্রবিন্দুতে। অন্যদিকে লরেন আর আমি মিলে তৈরি করি একটি সুখী পরিবার।

স্টিভ জবসের কালজয়ী বক্তৃতা
স্টিভ জবস

 

আমি মোটামুটি নিশ্চিত এগুলোর কিছুই ঘটতো না যদি না আমি অ্যাপল থেকে চাকরিচ্যুত হতাম। এটা ছিলো খুব তেতো একটা ওষুধ আমার জন্য, কিন্তু আমার মনে হয় রোগীর সেটা দরকার ছিলো। কখনো কখনো জীবন তোমাকে মাথায় ইট দিয়ে আঘাত করে। তখন বিশ্বাস হারিয়ো না। আমি নিশ্চিত যে জিনিসটা আমাকে সামনে এগিয়ে নিয়ে গিয়েছিলো সেটা হচ্ছে – আমি আমার কাজকে ভালোবাসতাম।

স্টিভ জবসের কালজয়ী বক্তৃতা
স্টিভ জবস

তোমাকে অবশ্যই তোমার ভালবাসার কাজটি খুঁজে পেতে হবে। তোমার ভালোবাসার মানুষটিকে যেভাবে তোমার খুঁজে পেতে হয়, ভালোবাসার কাজটিকেও তোমার সেভাবে খুঁজে পেতে হবে।

তোমার জীবনের একটা বিরাট অংশ জুড়ে থাকবে তোমার কাজ, তাই জীবন নিয়ে সন্তুষ্ট হওয়ার একমাত্র উপায় হচ্ছে চমৎকার কোনো কাজ করা।

খুঁজতে থাকো যতক্ষন না ভালোবাসার কাজটি পাচ্ছো।

 

স্টিভ জবসের কালজয়ী বক্তৃতা
স্টিভ জবস

আর কোনো কাজ তখনি চমৎকার হবে যখন তুমি তোমার কাজকে ভালোবাসবে। যদি এখনো তোমার ভালোবাসার কাজ খুঁজে না পাও তাহলে খুঁজতে থাকো। অন্য কোথাও স্থায়ী হয়ে যেওনা।

 

তোমার মন আর সব জিনিসের মতোই তোমাকে জানিয়ে দিবে যখন তুমি তোমার ভালোবাসার কাজটি খুঁজে পাবে। যে কোনো সম্পর্কের মতোই, তোমার কাজটি যতো সময় যাবে ততোই ভালো লাগবে।

সুতরাং খুঁজতে থাকো যতক্ষন না ভালোবাসার কাজটি পাচ্ছো। অন্য কোন কাজে স্থায়ী হয়ো না।

তৃতীয় পর্ব খুব শীঘ্রই আসছে আমাদের সাথেই থাকুন ভালো থাকুন । সফলতা কেবল আপনার জন্যই । 

 

Facebook Comments
SHARE